Skip to main content

সিলেটে শীতের সবজিবাজারে চড়া দামে বিক্রেতা খুশি হলেও ক্রেতার অসন্তোষ 

Article Highlights

শীতের ফসলে ভরে উঠেছে সিলেটের সবজিবাজার। স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত সবজি ছাড়াও জেলার বাইরের সবজি আমদানি করা হয় এই বাজারে। কিন্তু শাক-সবজির ভরা মৌসুমে দাম বেশি থাকায় ক্রেতাদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। তবে বেশি দামে সবজি বিক্রি করতে পেরে ব্যবসা ভালো হচ্ছে বলে জানালেন ব্যবসায়ীরা। 

শীতের ফসলে ভরে উঠেছে সিলেটের সবজিবাজার। স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত সবজি ছাড়াও জেলার বাইরের সবজি আমদানি করা হয় এই বাজারে। কিন্তু শাক-সবজির ভরা মৌসুমে দাম বেশি থাকায় ক্রেতাদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। তবে বেশি দামে সবজি বিক্রি করতে পেরে ব্যবসা ভালো হচ্ছে বলে জানালেন ব্যবসায়ীরা। 

সিলেট নগরীর সোবহানীঘাটে কাঁচা শাক-সবজির বড় আড়ৎ। সেখানে জেলার কানাইঘাট, জৈন্তাপুরসহ সদর উপজেলার টুকেরবাজারের শাক-সবজি পাইকারী কেনাবেচা হয়। এছাড়া জেলার বাইরে থেকেও ব্যবসায়ীরা ট্রাক বোঝাই করে সবজি এনে খুচরা ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করেন পাইকাররা। এই আড়ৎ থেকে পণ্য কিনে নগরীসহ জেলার অন্যান্য বাজারের শাক-সবজি বিক্রি করেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। কিন্তু বাজারের শীতের ভরা মৌসুমে দাম নিয়ে ক্রেতাদের মধ্যে অসস্তোষ রয়েছে। তবে বিক্রেতাদের দাবি নিয়মিত দামে শকি-সবজি বিক্রি করা হচ্ছে। 

বাজার ঘুরে দেখা গেছে, পাইকারী বাজারে ফুলকপির প্রতিকেজি এখনো ১৪ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর খুচরা বাজারে তা ২০ টাকা দরে বিক্রি করা হচ্ছে। একইভাবে পাইকারি বাজারে টমেটো প্রতিকেজি ২০ টাকা, খুচরা বাজারে ৩০ টাকা, বেগুন পাইকারি বাজারে প্রতিকেজি ১০ টাকা, খুচরা বাজারে ১৫ টাকা, শিমের পাইকারি দর কেজিপ্রতি ১০ টাকা, খুচরা ১৫ টাকা, পাতাকপি পাইকারি কেজিপ্রতি ৮ টাকা পড়লেও খুচরা ১২ টাকা, শালগম পাইকারি কেজিপ্রতি ৭ টাকার স্থলে খুচরা ১০ টাকা, খিরা পাইকারি কেজিপ্রতি ১২ টাকা, খুচরা ২০ টাকা, কাঁচা মরিচ পাইকারি কেজিপ্রতি ৩০ টাকা, খুচরা ৪৫ টাকা, ধনিয়া পাইকারি কেজিপ্রতি ৫ থেকে ৭ টাকা হলেও খুচরা ১৫ থেকে ২০ টাকা। পেঁপে পাইকারি কেজিপ্রতি দাম ১৫ টাকা, খাচরা ২০ টাকা, গাঁজর পাইকারি কেজিপ্রতি ১৫ টাকা আর খুচরা ২০ টাকা, আলু (নতুন) পাইকারি কেজিপ্রতি ১০ টাকা, খুচরা ১৮ থেকে ২০ টাকা, শিমের বীজ পাইকারি ৫০ টাকা কেজি হলেও খুচরা ৭০/৮০ টাকা, ফরাসবিচির পাইকারি কেজিপ্রতি দাম ৪০/৪৫ টাকা, খুচরা ৫০/৬০ টাকা, করলা পাইকারি কেজিপ্রতি ৩৫ টাকা ও খুচরা ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। 

সোবহানীঘাট কাঁচা বাজার আড়তের ব্যবসায়ী রফিক মিয়া বলেন, শীতের টাটকা সবজি বেশি দামে কেনা হয় বলে বিক্রি করতে হয় বেশি দামে। এখন শীতের সবজির মৌসুম। তাই বিক্রি ভালো হচ্ছে বলে লাভও একটু বেশি হচ্ছে। সোবহানীঘাট কাঁচা বাজারে সবজি কিনতে আসা ক্রেতা আব্দুল আউয়াল জানালেন, এবার শীতের সবজির দাম খুব একটা কমেনি। হাতাগাড়িতে সবজি বিক্রেতারা কেজিপ্রতি ৫/৬ টাকা বেশি লাভ করে। তাই পাইকারি বাজার থেকে সবজি কিনতে আসলাম। শীতের বাজারে দাম না কমাতে এই ক্রেতা অসন্তোষ জানালেন।