Skip to main content

লুটেরা চক্রের ৬ সদস্য আটক

রাজধানীর মিরপুর থেকে সাধারণ মানুষের সর্বস্ব লুটে নেয়া ডাকাত চক্রের ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ডিবি। ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি-উত্তর) গুলশান জোনাল টিম শুক্রবার রাতে তাদেরকে গ্রেফতার করে। তারা হলেন, গৌতম রাজবংশী (৩২), মো আব্দুস সালাম (২৪), সুব্রত কুমার ঘোষ ওরফে মো. শুভ (২৭), সুব্রত কুমার দত্ত (২৮), মো. মাসুদ রানা (২৫), ও মো. মহিন (২০)। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত ২টি চাপাতি ও ১টি চাকু উদ্ধার করা হয়।

ডিএমপির জনসংযোগ ও গণমাধ্যম বিভাগের এডিসি ওবায়দুর রহমান জানান, গ্রেফতারকৃতরা বিভিন্ন কৌশলে পথচারীদের টাকা-পয়সা ও মূল্যবান সামগ্রী লুটে নেয়। তারা কখনো মোটরসাইকেল কখনো প্রাইভেটকার বা মাইক্রোবাস নিয়ে মিরপুর, কল্যানপুর, টেকনিক্যাল, গাবতলী বাস স্ট্যান্ডসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মিশনে বের হয়। পথচারীদের পথ আটকে টাকা-পয়সা, ভ্যানিটি ব্যাগ, গলার চেইন ও মোবাইল ফোনসহ মূল্যবান জিনিসপত্র লুটে নেয়। এসব গোয়েন্দা সংবাদ পেয়ে মাঠে নামে ডিবি। প্রতিদিনের মত তারা লুটের উদ্দেশ্যে বের হলে গোয়েন্দারা তাদেরকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে তারা মিরপুর ও আশপাশের এলাকায় সন্ধ্যা ও ভোরে পথচারীদের গতিরোধ করে ম‚ল্যবান জিনিসপত্র লুটে নেয়। তারা একাধিক গ্রæপে বিভক্ত হয়ে কখনও দেশীয় অস্ত্র দেখিয়ে, আবার কখনও অভিনব কলা কৌশল অবলম্বন করে ছিনতাই করত।

তিনি আরো জানান, এক নারী অভিযোগ করেছেন, কিছুদিন আগে রিকশায় যাওয়ার সময় মিরপুর থানা রোডে এক অভিনব ছিনতাইয়ের শিকার হন তিনি। প্রথমে দুই যুবক তার রিকশা থামিয়ে স্থানীয় একটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানের সদস্য বলে পরিচয় দেয়। তার বাসার গৃহকর্মীকে ৩শ’ টাকা দান করতে চায়। কথা বলার এক পর্যায়ে তারা ওই নারীকে বলে আপনার সব গয়না ভ্যানিটি ব্যাগে ঢুকিয়ে নিয়ে যান। সামনে যারা আছে তারা আপনাকে গয়না দেখে বড়লোক ভাবতে পারে। তাদের কথামত তিনি গলার চেইন, কানের দুল ও হাতের বালা ভ্যানিটে ব্যাগে রাখেন। এমন সময় যুবকরা হঠাৎ তার ব্যাগটি ছিনিয়ে নিয়ে চলে যায়। গ্রেফতারকৃতরা সবাই উঠতি বয়সের যুবক ও মাদকাসক্ত। তারা সারা রাত ঘোরাফেরা করে। সুবিধাজন স্থানে ছিনতাই ও ডাকাতি করে থাকে। সরাদিন তারা ঘুমিয়ে কাটায়।

এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

অন্যান্য সংবাদ