Skip to main content

ভারতের বিরুদ্ধে আইনী লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপ ও টুইটার

ভারতে তথ্য প্রযুক্তি খাতে কিছু প্রস্তাবিত নতুন আইন পাস হলে এ খাতে বিদেশি বিনিয়োগ হুমকির মুখে পড়বে এমন আশঙ্কায় ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপ ও টুইটার এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে। নতুন প্রস্তাবিত আইনে বিদেশি তথ্য প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর বিভিন্ন অ্যাপে ম্যাসেজ অপশনে ভারতের সার্বভৌমত্ব ও অখ-তার বিরুদ্ধে  নিয়ে কোনো মন্তব্য করা হলে ২৪ ঘন্টার বিরুদ্ধে এর বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলা হয়েছে। অধিক নিয়ন্ত্রণের কথাও বলা হয়েছে প্রস্তাবিত আইনে। তবে এধরনের প্রস্তাবিত আইন সম্পর্কে মন্তব্য গ্রহণের শেষ সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে আগামী ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। আগামী মে মাসে ভারতে যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে তাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোনো মিথ্যা খবর দিয়ে ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা যাতে না হয় সেজন্যেই এধরনের প্রস্তাবিত আইনের উদ্যোগ নেয় দেশটির সরকার। বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড  

তবে তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পখাতের উদ্যোক্তা ও মানবাধিকার কর্মীরা বলছেন, এধরনের প্রস্তাবিত আইন পাস হলে বিজেপি সরকার তা বিরোধীদের দমনে ব্যবহার করবে ও অহেতুক নজরদারি বাড়বে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কোম্পানিগুলো কোনো মন্তব্যের জন্যে দায় নিতে চাচ্ছে না বরং বলছে যারা মন্তব্য করছেন তার জন্যে তার দায় তাদের। যুক্তরাষ্ট্র ও ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি কোম্পানিগুলো প্রস্তাবিত এ আইনের বিরুদ্ধে প্রস্তুতিমূলক প্রতিবেদন বা খসড়া তৈরি করে বিজেপি সরকারের কাছে জমা দেয়ার উদ্যোগও নিয়েছে। 
 

অন্যান্য সংবাদ