Skip to main content

বিবাহিত টিভি উপস্থাপিকা লরেনের সঙ্গে ৮ মাস ধরে চুটিয়ে প্রেম করছেন জেফ বেজোস

বিশ্বের শীর্ষ ধনী ব্যক্তি জেফ বেজোসের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে তিনি বিবাহিত টিভি উপস্থাপিকা লরেন স্যানচেজকে মোবাইল ফোনে আপত্তিকর বার্তা ও ছবি পাঠাতেন। ২৫ বছর ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে সংসার করার পর ডিভোর্স ঘোষণার মাত্র ২৪ ঘন্টার মধ্যে ৫৪ বছরের জেফ বেজোস ৪৯ বছরের লরেনকে ফের আপত্তিকর ক্ষুদে বার্তা ও ছবি পাঠিয়েছেন। দি সান, মিরর সহ একাধিক ট্যাবলয়েড পত্রিকাগুলো এধরনের খবর দিয়ে দাবি করছে গত ৮ মাস ধরে লরেনের সঙ্গে চুটিয়ে গোপনে প্রেম করছেন বেজোস।

১৪ হাজার কোটি ডলার মূল্যের সম্পদের অধিকারী বেজোস এক বিবৃতিতে ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে ছাড়াছাড়ির কথা জানানোর পর ট্যাবলয়েড পত্রিকাগুলো তার ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে অনুসন্ধানে নেমেছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বেজোসকে ডিভোর্সের জন্যে অভিনন্দন জানিয়েছেন এবং তার শুভ কামনা করেছেন। মার্কিন সাময়িকী দি ন্যাশনাল এনকুয়েরার লরেনকে দেয়া বেজোসের গোপন ক্ষুদে বার্তার রগরগে বর্ণনা ছেপেছে।  

Lauren Sanchez

প্রায়শঃ বেজোস ও লরেন ব্যক্তিগত বিমানে করে ঘুরে বেড়াতেন। পাঁচতারকা হোটেলে রাত কাটাতেন। একবার বেজোসের স্ত্রী ম্যাকেঞ্জি তার স্বামীকে জিজ্ঞেস করেছিলেন কেন ব্যক্তিগত বিমানে লরেন তার সঙ্গে একা ভ্রমণের সুযোগ নিচ্ছে। সুদুত্তর দিতে পারেননি বোজোস। লরেনের স্বামী প্যাট্রিক ও ৩টি সন্তান রয়েছে। এক মার্কিন ট্যাবলয়েড পত্রিকা বলছে লরেন ও বেজোসের কিছু আপত্তিকর ছবি তাদের হাতে এসে পৌঁছেছে যা তারা প্রকাশে সাহস পাচ্ছেন না। রয়েছে বেজোস ও লরেনের স্নানঘরের ছবিও। শুধু দি ন্যাশনাল এনকুয়েরার দাবি করছে, বেজোস ও লরেন যুক্তরাষ্ট্রের ৫টি প্রদেশে ১৪ দিনে ৬ বার ৪০ হাজার মাইল পথ পাড়ি দিয়েছেন। এনকুয়েরারের সাংবাদিক তাদের কাঙ্খিত ছবি পেতে সফল হয়েছেন। এবং এনকুয়েরার পত্রিকাটি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ঘনিষ্ট সমর্থক ও বেজোসের মালিকানাধীন ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিদ্বন্দ্বী বটে!
 

অন্যান্য সংবাদ