Skip to main content

বহাল থাকছেন স্পিকার, সংসদ উপনেতা, ডেপুটি স্পিকার, চিফ হুইপ ও হুইপ পদে চমক আসছে

মন্ত্রিসভায় ব্যাপক চমকের পর এবার জাতীয় সংসদের স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার, চিফ হুইপ ও হুইপ পদে নিয়োগ নিয়ে শুরু হয়েছে নানা জল্পনা-কল্পনা। মন্ত্রিসভায় সুনামির ধাক্কায় এসব পদে নিয়োগ লাভে আগ্রহীরা এখন এ নিয়ে মুখ খুলছেন না। তবে স্পিকার পদে শিরিন শারমিন চৌধুরীই বহাল থাকছেন এটা মোটামুটি নিশ্চিত।

রংপুরে নির্বাচনী প্রচারণায় গিয়ে শিরিন শারমিন চৌধুরীকে এমপি নির্বাচিত করলে তাকে আবারও স্পিকার করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বিপুল ভোটে রংপুর-৬ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। মন্ত্রিসভার অনেক রথী-মহারথীদের বাদ দেয়ার ঘটনা ঘটলেও স্পিকার পদে শিরীন শারমিন চৌধুরী বহাল থাকছেন এটা নিশ্চিত ধরেই হিসাব কষছেন সবাই।

মন্ত্রিসভার রদবদলের এ প্রেক্ষাপটে ডেপুটি স্পিকার, চিফ হুইপ এমনকি সংসদ উপনেতা পদে পরিবর্তনের সম্ভাবনাই সামনে চলে এসেছে। এক্ষেত্রে সরকারি দলের উপনেতা পদে সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী শারীরিক অসুস্থতার কারণে দায়িত্ব পালনে অক্ষম হলে পরিবর্তন আসতে পারে। গত ১০ বছর তিনি এ পদে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। 

আওয়ামী লীগের দু:সময়ের কাণ্ডারি সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর বিকল্প হিসেবে সবচে’ বেশি আলোচিত হচ্ছে বেগম মতিয়া চৌধুরীর নাম। ১৫ বছরের সফল কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীকে এবার মন্ত্রিসভায় রাখা হয়নি। বলা হচ্ছে, সাজেদা চৌধুরী দায়িত্ব পালনে অপারগ হলেই কেবল এ পদে পরিবর্তন আনা হতে পারে। সে ক্ষেত্রে ৮ বারের সংসদ সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নামও আসছে আলোচনায়। মন্ত্রিসভার মতো সংসদেও নিকটাত্মীয়দের দায়িত্ব প্রদান থেকে বিরত থাকলে এ পদের জন্য তিনি বিবেচিত হবেন না।

সংসদের ডেপুটি স্পিকার পদে বর্তমানে দায়িত্ব পালন করা এ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি বহাল থাকতে পারেন। তাকে পরিবর্তন করা হলে এ পদে সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু, সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ ও সাবেক উপ-মন্ত্রী ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর নামে বিবেচনায় আসতে পারে। তবে এ পদে নতুন কাউকে নিয়োগ দিয়ে চমক দিতে পারেন সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজকে পরিবর্তন করে সাবেক হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটনকে দায়িত্ব দেয়া হতে পারে। আত্মীয়তার কারণে তিনিও বাদ পড়লে এ পদে সাবেক হুইপ আতিউর রহমান আতিককে দায়িত্ব দেয়া হতে পারে।

সংসদের হুইপ পদে সামাজিক মিডিয়ায় আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপনের নাম আলোচিত হলেও এখনও এর কোনো ভিত্তি খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তবে হুইপ পদে আলোচনায় রয়েছেন চট্টগ্রামের ফজলে করিম চৌধুরী, হবিগঞ্জের আবু জাহির, ময়মনসিংহের নাজিম উদ্দিন, নজরুল ইসলাম বাবু, শফিকুল আজম খান, শওকত হাচানুর রহমান রিমন, বর্তমান হুইপ ইকবালুর রহীম ও মাহাবুব আরা গিনি।

আগামী ৩০ জানুয়ারি শুরু হতে যাওয়া অধিবেশনের আগেই এসব পদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। এ অধিবেশনেই বিভিন্ন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিগুলো গঠিত হবে। সংসদের উপনেতা, ডেপুটি স্পিকার, চিফ হুইপগণ পূর্ণমন্ত্রীর এবং হুইপরা প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদা ও সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে থাকেন।
 

অন্যান্য সংবাদ