Skip to main content

প্রতিহিংসার বশেই ধর্ষণের অভিযোগ! নতুন মোড় অলোক নাথ মামলায় 

বলিউডে মি-টুর ঝড়ে প্রথমেই নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছিলেন তনুশ্রী দত্ত। তারপর যৌন হেনস্থা নিয়ে একে একে অনেক তারকাই মুখ খুলতে থাকেন। সে সময়ই বর্ষীয়ান অভিনেতা অলোক নাথের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে পরে মামলাও করেন পরিচালক বিনতা নন্দা।

সে মামলায় আলোক নাথ আগাম জামিনে মুক্তির পর এখন স্বস্তিতে আছেন। তবে এই গোটা পর্ব থেকে উঠে এসেছে একাধিক তথ্য।অভিযোগকারী বিনতা নন্দার বিরুদ্ধেই কার্যত রায় দিয়েছে আদালত।

ভারতে মুম্বাইয়ের এক আদালতে চলছিল অলোক নাথের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া ধর্ষণ মামলায় আগাম জামিনের শুনানি। সে সময়েই আদালত জানিয়েছে, ব্যক্তিগত আক্রোশ থেকে প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই আলোকের বিরুদ্ধে বিনতা নন্দা ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন।

৫ লাখ টাকার বন্ডের বিনিময়ে ৬২ বছর বয়স্ক অভিনেতা অলোকের আগাম জামিন মঞ্জুর করেন বিচারক। জামিনের আদেশে বিচারকের ভাষ্য, সম্পূর্ণ ভুল এবং কাল্পনিক তথ্যের ভিত্তিতে অভিযোগকারী পুলিশে এফআইআর করেছিলেন।

আদালতের প্রশ্ন,  ঘটনা ঘটার পরই কেন বিনতা পুলিশকে এ বিষয়ে কিছু জানাননি? ধর্ষণের ঘটনা মনে রাখলেও কেন ঘটনার তারিখ মনে রাখেননি? ঘটনার ২০ বছর পর কেন তিনি মামলা দায়ের করলেন? ফলে আদালতের ধারণা, অলোককে ফাঁসানোর জন্য এমন অভিযোগ এতদিন পর করেছেন বিনতা। পাশাপাশি আদালত জানিয়েছে, কোনও রেকর্ড থেকেই স্পষ্ট নয় যে, বিনতাকে হুমকি দিয়েছিলেন অলোক নাথ।

আদালতের জামিনের আদেশে আরো বলা হয়, অলোককে একতরফাভাবে ভালবাসতেন বিনতা। অলোকের স্ত্রী আশু এবং বিনতার গাঢ় বন্ধুত্ব ছিল। পরে কাজের সূত্রে অলোক নাথের সঙ্গে তাদের পরিচয় হয়। অলোকের সঙ্গে আশুর প্রেম গড়ে ওঠে। দু’জনে বিয়েও করেন। আদালতের বক্তব্য, সে সময় একা হয়ে পড়া বিনতা প্রিয় বান্ধবীর সঙ্গে অলোকের বিয়ে মেনে নিতে পারেননি। তাই প্রতিহিংসা বশেই এখন অলোকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছেন বিনতা। 

বিনতার দাবি ছিল ১৯ বছর আগে তাকে ধর্ষণ করেন প্রখ্যাত অভিনেতা অলোক নাথ। তার অভিযোগ, ঘরোয়া একটি পার্টি চলার সময় পানির সঙ্গে কিছু একটা মিশিয়ে তাকে খাওয়ান অলোক। এরপর তাকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার প্রস্তাব দিয়ে সে সুযোগে অন্যখানে নিয়ে গিয়ে অলোক তাকে ধর্ষণ করেন। ২০১৮ সালে পুলিশের কাছে এ অভিযোগ করেন বিনতা।