Skip to main content

ধর্ষণের তদন্তে রোনালদোর ডিএনএ চেয়েছে পুলিশ

ক্যাথরিন মায়োরগার জারি করা ধর্ষণ মামলা থেকে খুব সহজেই পার পাচ্ছেন না ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ওই ধর্ষণ মামলার তদন্তে রয়েছে লাস ভেগাস পুলিশ। এবার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর ডিএনএ চেয়ে পরোয়ানা জারি করেছে লাস ভেগাস পুলিশ।

মামলার বাদী ক্যাথরিন মায়োরগার পোশাকে ডিএনএ খুঁজে পেয়েছে ভেগাসের পুলিশ সদস্যরা। যুক্তরাষ্ট্রের ‘ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল’ সংবাদপত্র জানিয়েছে, রোনালদোর ডিএনএ নমুনা চেয়ে পরোয়ানা জারি করেছে লাস ভেগাস পুলিশ।

অভিযোগকারী মায়োরগার পোশাকে খুঁজে পাওয়া ডিএনএ-র সঙ্গে রোনালদোর ডিএনএ মিলিয়ে দেখতে চান তারা।
যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক মডেল ক্যাথরিন মায়োরগার অভিযোগ, ২০০৯ সালে লাস ভেগাসের এক হোটেলে তাকে ধর্ষণ করেছিলেন রোনালদো। গত সেপ্টেম্বর নেভাদার আদালতে রোনালদোর বিরুদ্ধে মামলা করেন মায়োরগা।

লাস ভেগাস পুলিশ এরই মধ্যে ডিএনএ পরোয়ানা ইতালিয়ান কর্তৃপক্ষকে পাঠিয়েছে। রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে জুভেন্টাসে যোগ দেওয়ার পর রোনালদো ইতালির তুরিনে বসবাস করছেন। সেখানকার বিচারিক কর্তৃপক্ষের কাছে এই পরোয়ানা পাঠিয়েছে লাস ভেগাস পুলিশ। ইতালিয়ান পুলিশ এখন রোনালদোর ডিএনএ সংগ্রহ করে লাস ভেগাস পুলিশকে পাঠাবে।

পুলিশের ডিএনএ নমুনা চাওয়া প্রসঙ্গে রোনালদোর আইনজীবী পিটার এস, ক্রিস্টিয়ানসেন বলেন, ‘রোনালদো আগের মতো এখনো বলছেন, ২০০৯ সালে লাস ভেগাসে যা হয়েছিল সেটি আসলে পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে। তাই ডিএনএ থাকার বিষয়টি মোটেও অবাক করার মতো কিছু নয়।’ বিবিসি, সিএনএন