Skip to main content

দুর্নীতিমুক্ত একটি বাংলাদেশ গড়া সরকারের অন্যতম চ্যালেঞ্জ

ফাহিম বিজয় : নতুন বছরে নতুন সরকারের কাছে মানুষের অনেক প্রত্যাশা রয়েছে। সরকার নির্বাচনী ইশতেহারে যেসব কাজের জন্য অঙ্গীকার করেছে এগুলো বাস্তবায়ন করাই হবে এই সরকারের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ এমন মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. এ জে এম শফিউল আলম ভূঁইয়া। 
এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, সরকারের অন্যতম চ্যালেঞ্জ হলো, দুর্নীতিমুক্ত একটি বাংলাদেশ গড়া। সমাজে এবং রাষ্ট্রে যে সেক্টরগুলোতে দুর্নীতি বিদ্যমান রয়েছে এগুলো দূর করার জন্য কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স দেখাতে চাচ্ছে এটিকে বাস্তবায়ন করতে হবে। জিরো টলারেন্সের নীতিটাকে বাস্তবায়ন করা।
তিনি বলেন, সমাজে এবং রাষ্ট্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে হবে। উন্নয়নের সুফল সকল মানুষের কাছে পৌঁছাতে হবে। সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে সুশাসন নিশ্চিত করতে হবে। সুশাসনের অভাবে দেশের মেধা-সম্পদের অপচয় হয় ও জাতীয় উন্নয়নে বাধার সৃষ্টি করে। সুশাসনের অভাবকে জিইয়ে রেখে ব্যক্তিক, সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক তথা সুষ্ঠু জাতীয় উন্নয়ন সম্ভব নয়। সামাজিক সম্প্রীতি গড়ে তোলা ও বজায় রাখা অসম্ভব হয়ে দাঁড়ায়। তাই সকল ক্ষেত্রে সুশাসন নিশ্চিত করতে হবে।
এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, বিএনপির এখন করণীয় হলো, তারা যে ক’টি আসন পেয়েছে তা নিয়েই সংসদে গিয়ে জনগণের কথা বলা। তাদের সাংগঠনিক অবকাঠামোকে শাক্তিশালী করা। সাংগঠনিক অবকাঠামো এবং দলীয় অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণেই কিন্তু তাদের এই বিশাল পরাজয় হয়েছে। তারা জনগণের মনের কথা বুঝতে ব্যর্থ হয়েছে। তিনি আরো বলেন, জামায়াত এই মুহূর্তে অনিবন্ধিত একটি রাজনৈতিক দল। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের বিরুদ্ধে যারা যে সহিংসতা করেছিলো, এর ফলে জামায়াত একটি সন্ত্রাসী দল উল্লেখ করে রায় এসেছে। তো আমার কাছে মনে হয়, আইনমন্ত্রী চাইলে তাদের বিরুদ্ধে একটি ব্যবস্থা নিতে পারেন। এখন দেখা যাক তাদের বিরুদ্ধে কী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়।

অন্যান্য সংবাদ