Skip to main content

অশ্রুসিক্ত নয়নে এ বছরেই বিদায়ের কথা জানালেন অ্যান্ডি মারে

Article Highlights

অ্যান্ডি মারে বললেন বিদায়ের কথা। এ বছরের উইম্বলডন খেলেই বিদায় নিবেন। আর মারের বিদায় দিয়েই ভাঙবে টেনিসের বিগ ফোর।

গত বছরের শুরুতেই টেনিস বোদ্ধারা জানিয়েছিলেন ‘বিগ ফোরে’ ভাঙন আসতে পারে এ বছরেই। তাদের সেই ধারণা প্রমাণ করে বছরের শুরুতেই বিদায়ের কথা জানিয়ে দিলেন অ্যান্ডি মারে। ৩ টি গ্র্যান্ডস্ল্যামজয়ী অ্যান্ডি মারে নিজের ক্যারিয়ারের ইতি টানতে যাচ্ছেন। গতকাল অশ্রুসিক্ত নয়নে জানিয়েছেন এ বছরের উইম্বলডনই হবে তার শেষ গ্র্যান্ডস্লাম।

রজার ফেদেরার, রাফায়েল নাদাল, নোভাক জোকোভিচ আর অ্যান্ডি মারেকে নিয়ে ছিল টেনিসের বিগ ফোর।। যদিও প্রথম তিনজনের মতো শেষের জন কিছুটা অনুজ্জ্বল ছিলেন বটে। কিন্তু স্বমহিমায় নিজেকে চেনাতে কোনো ছাড় দেননি ব্রিটিশ তারকা অ্যান্ডি মারে। অথচ সবার পরে টেনিসের ঝলমলে আসরে পা দেওয়া অ্যান্ডি ব্যারন মারেকে টেনিস কোর্ট থেকে বিদায় নিতে হচ্ছে সবার আগে! তিনবারের গ্র্যান্ডস্লাম জয়ী মারেকে এ বছরের উইম্বলডনের পর আর দেখা যাবে না টেনিস কোর্টে।

দুই বছর আগেও টেনিসের ‘বিগ ফোর’-এর সবাই চোটের কারণে বাইরের ছিলেন একসঙ্গে। ফেদেরার তো বলেই দিয়েছিলেন, একসঙ্গে চারজনকে আর নাও দেখা হতে পারে। কিন্তু প্রথম তিনজন দোর্দ- প্রতাপে ফিরে এসেছেন। মারে পারলেন না। কোমরের চোটের সঙ্গে দীর্ঘ তিন বছরের লড়াইয়ের পর হার মানতে হলো ‘নাইট’ খেতাব পাওয়া এই ব্রিটিশকে।

মারে নিজেকে শান্ত করে জানিয়েছেন নিজের সিদ্ধান্ত, ‘আমি খুব একটা সুস্থ না। অনেক দিন ধরেই এই লড়াই চলছে। এই ব্যথা নিয়ে আছি প্রায় ২০ মাস। আমি আমার যা কিছু সম্ভব তার সবই করেছি কোমরের চোট কাটিয়ে উঠতে। আসলে ব্যথাটা অনেক বেশি, চিন্তাও করা যায় না এমন। আমি জানি না কবে এই ব্যথা কমবে। আদৌ কমবে কি না, তাও জানি না।’

এক নাগাড়ে কথাগুলো বলে যান অ্যান্ডি মারে। পরিবারের বিষয়টিও খুবই বড় করে দেখছেন মারে, ‘কিছু চিন্তার বিষয়ও আছে। আরেকটি অস্ত্রোপচার আমাকে সাময়িকের জন্য আরেকটু সুস্থ করতে পারে, কিন্তু ভবিষ্যৎ বলতে পারে না। সেটি করলে আমি আরেকটু সুস্থ হতে পারব। আমার পরিবারের সঙ্গে একটা ভালো জীবন কাটাতে পারব।’

গত জানুয়ারিতেই অস্ত্রোপচারের টেবিল থেকে ফিরেছেন মারে। জুনে কোর্টে ফেরত আসার পর থেকে মাত্র ১৪ টি ম্যাচ খেলেছেন মারে। এই অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে ৩১ বছর বয়সী তারকার প্রতিপক্ষ স্প্যানিশ বাতিস্তা অ্যাগুত। ২২তম বাছাইয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই অস্ট্রেলিয়ান ওপেন শুরু করবেন মারে।